শুভ শারদীয়া

শুভ শারদীয়া

Last Updated on



আমার শহর কলকাতা এখন বাঙালির সর্বশ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপূজার আনন্দে মাতোয়ারা | নতুন সাজে সেজে উঠেছে কল্লোলিনী কলকাতা | বড় বড় প্যান্ডেল , প্রতিমা , আলোর রোশনাইতে এখন ঝা চকচকে কলকাতা | সেই সাথেই রোজ নতুন সাজে সেজে উঠছে সমগ্র কলকাতাবাসী |
তবে পুজোর দিনগুলোর চেয়ে ‘ পুজো আসছে , পুজো আসছে ‘ এই অনুভূতিটাই মনে বেশি আনন্দ জাগায় | কারণ একবার পুজো এসে গেলেই তো হুড়হুড় করে কেটে যায় পুজোর চারটে দিন | আর পুজো মানেই তো দেদার মজা , আনন্দ এবং নস্টালজিয়া |
মনে পরে ছোটবেলায় পুজোর গন্ধ -এর সাথে জুড়ে থাকতো নতুন নতুন জামা , জুতো এবং প্রসাধনীর গন্ধ | বর্তমানে পুজোর আগে নিজের জন্যে আজকাল সেই আগের মতো কেনাকাটি করার ততটা উৎসাহ পাই না , যতটা উৎসাহ থাকে ছেলের জন্যে নতুন নতুন জিনিসপত্র কেনার মধ্যে | কিন্তু ছেলের বাবা বেজায় ব্যস্ত মানুষ | এমনকি ছুটির দিনেও তাঁর অবসর নেই | এদিকে আমি আবার ভিড় -ভীতু | মানে ভিড় দেখলেই ভয় পাই | আর পুজোর আগে কলকাতার সমস্ত দোকান -পাট -মল এবং বাজারের যা অবস্থা থাকে তাতে ভিড় ঠেলে কেনাকাটি করে বাড়ি ফেরা আমার কাছে অনেকটা যুদ্ধ জয় করে ফেরার মতোই | তার উপরে আমার ছেলের বয়েস মাত্র চার | ওকে এই ভিড়ের মধ্যে নিয়ে যেতেও ভয় পাই | কিন্তু তাই বলে কি ওর পুজোর কেনাকাটি হবে না ! তাও কি সম্ভব ? মোটেই না | এই ব্যাপারে আমার মুশকিল আসান হলো #firstcry.com. পুজোর আগে অবসরে ঘরে বসে আমার মোবাইল ফোনে #firstcry.com. এর সাইট খুলে ছেলের জন্যে পছন্দ মতো জামা , জুতো প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নির্বাচন করে আমার সাধ্যের মধ্যে দাম দেখে নিয়ে অর্ডার করে ফেললাম | তারপরেই তিন থেকে চার দিনের মধ্যেই সেইসব কিছু এসে হাজির একেবারে আমার বাড়ির দোরগোড়ায় | ব্যাস অতি সহজে আমার রাজপুত্রের জন্যে পুজোর কেনাকাটা করে ফেললাম | এখন প্রতিদিন ওকে নিজের হাতে খুব সুন্দর করে সাজিয়ে দেবার পরে , ওর চুলের ফাঁকে কাজলের টিপ্ দিতে ভুলিনা কখনো | যাতে ওর ওপর কারোর নজর না লাগে |
তবে শুধু ছেলের জন্যেই নয় , আত্মীয় এবং বন্ধু ও বান্ধবীদের ছেলে মেয়েদের জন্যেও পুজোর সব উপহারই আমি কিনেছি #firstcry.com থেকেই | আর তারাও সেই সব উপহার পেয়ে খুব খুশি | ওদের সকলের হাসিমুখগুলো আমার পুজোকে করে তুলেছে আরো ঝলমলে | আমার মতোই এখন আমার অনেক বান্ধবীদের মুশকিল – আসান বন্ধু হয়ে উঠেছে এই #firstcry.com. এখন তো শুধু সাইট বা এপ -ই নয় | খুলে গেছে বেশ কয়েকটি #firstcry.com এর দোকানও | ভাবছি এই পুজোর পরে একদিন সেই দোকান থেকেও ঘুরে আসবো | আর হ্যা তারপরে অবশ্যই আপনাদের সাথে ভাগ করে নেবো আমার ঘুরে আসার অভিজ্ঞতার কথাও | আজ আর বেশি কথা নয় | এখন ছেলেকে নতুন জামা -জুতো পরিয়ে সাজিয়ে ঠাকুর দেখতে বেরোতে হবে যে | আজ তবে এই টুকুই | সকলকে আমার এবং আমার পরিবারের তরফ থেকে জানাই শুভ শারদীয়ার আন্তরিক প্রীতি ও শুভেচ্ছা | সকলের পুজো খুব ভালো কাটুক এই কামনাই করি |ধন্যবাদ #firstcry.com. | তোমাকে জানাই শুভ শারদীয়ার আন্তরিক প্রীতি ও শুভেচ্ছা | এমন করেই আমার মতো আরো অনেক মায়েদের বন্ধু এবং মুশকিল -আসান হয়ে ওঠো এই কামনাই করি | শুভ শারদীয়া |
Disclaimer: The views, opinions and positions (including content in any form) expressed within this post are those of the author alone. The accuracy, completeness and validity of any statements made within this article are not guaranteed. We accept no liability for any errors, omissions or representations. The responsibility for intellectual property rights of this content rests with the author and any liability with regards to infringement of intellectual property rights remains with him/her.